বিনস (Green beans) 250GM

₹55.00Price
  • বিনসের উপকারিতা

    শুরুতে ইউরোপ-আমেরিকার মানুষের পছন্দের খাবার হলেও ধীরে ধীরে স্বাদ-গুণের জন্য সারা পৃথিবীতে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। যেকোনো দেশের সবজি রান্নাতেই বিনসের উপস্থিতি লক্ষণীয়। সবুজ বিনসের নাম নানা দেশে ভিন্ন হলেও পুষ্টিগুণ একই। নানারকম উপকারী ভিটামিন, মিনারেল ও ফাইবারে ভরপুর সবুজ বিনস। শুধু পুষ্টিগুণই নয়, খাবারের শোভাবর্ধন করতেও এর জুড়ি নেই। স্যুপ বা সালাদ থেকে শুরু করে স্ট্যু বা কারি, সবকিছুতেই বিনসের উপস্থিতি স্বাদ বাড়ায় এবং এর সবুজ ভাব খাবার দেখতেও বেশ হয়। বিনসের ক্যালরি ও ফ্যাটের পরিমাণ খুবই কম থাকে এবং কোলেস্টেরল একেবারেই থাকে না। কিন্তু এটি শরীরে প্রয়োজনীয় প্রোটিনের অভাব পূরণ করে। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবারও মজুদ থাকে। ভিটামিন ‘এ’, ‘সি’, ‘কে’, ‘বি-সিক্স’ এবং ফলিক অ্যাডিসের অন্যতম উৎস সবুজ বিনস। এছাড়া ক্যালসিয়াম, সিলিকন, আয়রন, ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম ও কপারের মতো মিনারেলেও ভরপুর বিনস।

    নিয়মিত বিনস খেলে হার্টের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কমে। কারণ এতে প্রচুর ফ্লেভোনয়েডস থাকে। ফ্লেভোনয়েডস আসলে এক ধরনের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। ফ্লেভোনয়েডসে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেন্টরি গুণ থাকায় এটি শরীরে প্রদাহ হওয়ার আশঙ্কা কমায় ও রক্তনালিতে রক্তকে জমাট বাঁধতে দেয় না। বিভিন্ন কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা, হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের অন্যতম কারণই হলো রক্তনালিতে রক্ত জমাট বাঁধার প্রবণতা। গবেষণায় দেখা গেছে, সবুজ বিনস শরীরে কোলন ক্যান্সার সৃষ্টিকারী প্রি-ক্যান্সারাস পলিপ তৈরি হতেও বাধা দেয়। তবে এ বিষয়ে আরো প্রামাণ্য তথ্যের প্রয়োজন।

    বিনসের ফাইবার হজমে সাহায্য করে। রাওয়েল মুভমেন্ট স্বাভাবিক রাখে। কনস্টিপেশন বা অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকলেও বিনস বেশ উপকারী। সবুজ বিন ডায়াবেটিসের সমস্যাকেও নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। বিনস নানা ধরনের অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের ভাণ্ডার। এই অ্যান্টি-অক্সিডেন্টগুলো ক্ষতিকর ফ্রি র‌্যাডিক্যালসের সঙ্গে লড়াই করে সার্বিক রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। সবুজ বিনস চোখ ভালো রাখতেও সাহায্য করে। এর ক্যারটিনয়েডস স্যাকুলার ডিজানারেশন হওয়ার আশঙ্কা কমায়। বিনসের লুটিন ও জিয়াজ্যানথিন চোখের ওপর অযথা চাপ সৃষ্টি হতে দেয় না। বিনসের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ‘কে’, ‘এ’ এবং সিলিকনের মতো উপকারী উপাদান থাকায় এটি হাড়কে মজবুত করে এবং অস্টিওপোরোসিসকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। স্বাদ-গুণে ভরপুর বিনস প্রতিদিনের খাবার তালিকায় রাখুন, সুস্থ থাকুন।

    Credit - রাহনুমা শর্মী

Account